- Advertisement -

সাপ্তাহিক কৃষি বুলেটিন (১৯ – ২৬ অক্টোবর ২০১৯)

73

- Advertisement -

 

 

কৃষিতে বারহাট্টা: সাপ্তাহিক কৃষি বুলেটিন
(১৯ – ২৬ অক্টোবর ২০১৯)

কার্তিকের আগমনে শুরু হলো হেমন্তকাল। হেমন্তেই অবারিত সবুজের প্রান্ত আস্তে আস্তে সোনালি রং ধারণ করবে। সোনালী ধানের মৌ মৌ গন্ধ ছড়িয়ে যাবে দিক দিগন্তে। মাতোয়ারা হবে মন। কৃষকের মন খুশিতে ভরে উঠবে। আগামী সপ্তাহে কৃষির ভুবনে কি আছে চলুন একটু জেনে নেই।

রোপাআমন মাঠে ইঁদুর সবচেয়ে বড় সমস্যা। ইঁদুর সমস্যা নিরসনে সামাজিক উদ্যোগের বিকল্প নেই। প্রত্যেক কৃষক অন্তত একটি করেও ইঁদুর মারে তাতেও ইঁদুরের আক্রমন থেকে অনেকাংশে ফসল রক্ষা করা যাবে। ধান ক্ষেতে এসময়ে গান্ধি পোকা ও শিষ কাটা লেদা পোকার আক্রমন হতে পারে, তাই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে। যেসব জমি কাইচ থোড় থেকে থোড় অবস্থায় অবশ্যই জমিতে ২-৫ সেমি পানি রাখার ব্যবস্থা নিন। প্রয়োজনে অবশ্যই সম্পূরক সেচের ব্যবস্থা নিতে হবে। তবে ধানগাছের শিষে চাল হওয়া শুরু হলে জমি থেকে পানি দ্রæত অপসারণ করে দিন, তাতে ধান দ্রæত পাকবে।

সরিষা বপনের প্রস্ততি নেয়ার সময় এখনই। বারি সরিষা১৪, বারি সরিষা১৫, বিনা সরিষা৯ এসব উচ্চফলনশীল জাতের সরিষার বীজ সংগ্রহ করতে পারেন। সরিষার সর্ব্বোচ্চ ফলন পেতে অবশ্যই ৩০শে কার্তিকের মধ্যে জমিতে বপন করতে হবে। সরিষা ফসলে পর্যাপ্ত পরিমান জিপসাম ও বোরণ সারের প্রয়োজন হয়।

গম রবি মৌসুমের গুরুত্বপূর্ণ ফসল। উন্নত জাত যেমন বারি গম২৫ (তাপ সহনশীল), বারি গম৩০ (পাতায় দাগ রোগ ও মরিচা রোধী) এবং বারি গম৩৩ (ব্লাস্ট রোধী) জাতের বীজ সংগ্রহ করে নিন। গমের অধিক ফলন পেতে সেচের ব্যবস্থা করতে হবে।

শীতকালীন সবজি চাষীদের জন্য পরামর্শ, বীজতলার জন্য আলো বাতাস থাকে, সেচ ও নিষ্কাশন সুবিধাসহ উঁচু জায়গা নির্বাচন করুন। চাষের সময় জমিতে প্রচুর জৈব সার ব্যবহার করুন। জমিকে ভালভাবে কুপিয়ে পরিমিত সার মাটির সাথে মিশিয়ে ৫/৭ দিন রেখে দিন। বীজতলার মাটি শোধন করে নিন। বীজ বপনের আগে মাটিকে ভালভাবে ঝুরঝুরে করে নিন, যাতে মাটিতে প্রচুর রস থাকতে পারে। মাটিকে ভালভাবে ঝুরঝুরে নেয়ার পর বিকেল বেলা বীজতলায় সুন্দর ভাবে বীজ বপন করুন। ৩ মিটার দৈর্ঘ্য ও ১ মিটার প্রস্থ বীজতলায় সবজির প্রকার ভেদে ১০ থেকে ২০ গ্রাম বীজ বপন করুন, এতে এক থেকে দু’হাজার চারা পাওয়া যাবে। যে সব বীজের খোসা শক্ত সেগুলো বপনের আগে দু’এক দিন ভিজিয়ে রাখুন এর পর জমিতে বপন করুন। ফুলকপি, বাধাকপি এসব সবজির সবল ও সুস্থ্য চারা পেতে হলে দু’তিন পাতা বিশিষ্ট চারা অন্য বীজতলায় নিয়ে ৫ সেন্টিমিটার দূরত্বে রোপন করুন। চারার বয়স ৪ থেকে ৫ সপ্তাহ হলে চারা আসল জমিতে রোপন করুন।

সবজি চাষীদের বলছি জমি তৈরির সময় শতক প্রতি ৪ কেজি হারে ডলোচুন ব্যবহার করে নিবেন। তাছাড়া বেগুন, টেেমটোসহ বিভিন্ন ফসলের ঢলে পড়া রোগের প্রতিকার হিসেবে জমি তৈরির সময় বিঘা প্রতি ২ কেজি বিøচিং পাউডার ব্যবহার করতে পারেন। এতে জমির ক্ষতিকর অণুজীবগুলো মারা যাওয়াসহ মাটির উর্বরতা শক্তি বৃদ্ধি পায়। মাটির স্বাস্থ্য রক্ষায় ভার্মিকম্পোস্ট খুবই কার্যকরী সার। পাটের বীজ সংরক্ষণের জন্য রোদ্রময় দিনে পাট বীজগুলোকে আলাদা করে রোদে শুকিয়ে যতœ করে সংরক্ষণ করুন।

আলু, আখ, মিষ্টি আলুর জন্য জমি প্রস্তুতি ও রোপনের সময় এখনই তাই আজই প্রয়োজনীয় বীজ সংগ্রহসহ প্রস্তুতি নিতে পারেন।

বোরো ধান উৎপাদনে, শুরুতেই আপনার কাঙ্খিত জাতের গুণগতমানের বীজ সংগ্রহ করে নিন। আগাম জাতের মধ্যে ব্রি ধান২৮, ব্রি ধান৬৭, ব্রি ধান৭৪, ব্রি ধান৮১, ব্রি ধান৮৪ এবং ব্রি ধান৮৮ এর বীজ সংগ্রহ করতে পারেন। দীর্ঘ মেয়াদী জাতের মধ্যে ব্রি ধান২৯, ব্রি ধান৫৮, ব্রি ধান৬৯, ব্রি ধান৮৯ এর বীজ সংগ্রহ করতে পারেন। চিটা ও শৈত্য প্রবাহের তীব্রতা থেকে রেহাই পেতে দীর্ঘমেয়াদি জাতসমূহের বীজতলা ০১ নভেম্বর থেকে ০৭ নভেম্বর এবং স্বল্পমেয়াদি জাতগুলো ১৫ নভেম্বর হতে ২১ নভেম্বরের মধ্যে বীজতলা তৈরি করতে হবে। বোরো ধানের চারার বয়স ৩৫-৪৫ দিনের মধ্যেই রোপণ করতে হবে।

কৃষিই সমৃদ্ধি, কৃষিই আপনার অস্তিত্বের ধারক

সংকলন: কৃষিবিদ মোহাইমিনুর রশিদ, উপজেলা কৃষি অফিসার, বারহাট্টা, নেত্রকোণা।

 

- Advertisement -

মন্তব্যসমূহ বন্ধ করা হয়, কিন্তু ট্র্যাকব্যাক এবং পিংব্যাক খোলা.